সোমবার ১৪ জুন ২০২১ ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সোমবার ১৪ জুন ২০২১

নাজিব রাজাককে অর্থ দানের কথা সত্যি : সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সুন্নীবার্তা ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৬, ২:১৬ পিএম আপডেট: ১৬.০৪.২০১৬ ২:২৩ পিএম  Count : 691

                                                             
মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে সউদী আরবের দেয়া ৬৮ কোটি ১০ লাখ ডলার দানের ঘটনা সত্যি। ওআইসি সম্মেলন উপলক্ষ্যে তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় অবস্থানরত সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদেল আল-জুবেইর-এর বরাত দিয়ে মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা শুক্রবার এই খবর জানিয়েছে। এই অর্থ নিয়ে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন তার বিরোধীরা। বিরুদ্ধবাদীরা রাষ্ট্র পরিচালিত মালয়েশিয়া উন্নয়ন বেরহাদে (ওয়ানএমডিবি) দুর্নীতির কলঙ্কে নাজিবকে বিদ্ধ করার চেষ্টা করেছে।
                                                          

মালয়েশিয়ার বার্তা সংস্থা বার্নামা বলেছে, আল-জুবেইর জানান যে সউদী কর্মকর্তারা এই দান সম্পর্কে অবহিত এবং কোন কিছুর বিনিময় ছাড়াই এই দান করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার এটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ আপান্দি আলী এই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক তদন্ত করেছেন এবং এতে বেআইনি কিছু পাননি। আল-জুবেইর বলেন, আমরা যতটুকু জানি. বিষয়টির সমাপ্তি ঘটেছে।

 নাজিব মালয়েশিয়ায় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি জোরালো করে তুলতে ২০০৯ সালে ওয়ানএমডিবি গঠন করেন। তিনি দুর্নীতির অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন। মার্কিন ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল ২০১৫ সালের জুলাইয়ে প্রথম এ খবরটি প্রকাশ করে। এতে বলা হয় যে, তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন যে সিঙ্গাপুরে ফ্যালকন প্রাইভেট ব্যাংকের একটি একাউন্ট থেকে এই অর্থ মালয়েশিয়ায় একাউন্টে স্থানান্তরিত হয়েছে। তদন্ত করার পর গত জানুয়ারিতে এটর্নি জেনারেল আপান্দি দুর্নীতির অভিযোগে নাজিবকে অভিযুক্ত না করে বলেন, এই অর্থ সউদী রাজপরিবার থেকে দেয়া ব্যক্তিগত দান ছিল। রাজ পরিবার কেন এই অর্থ দান করেছেন বা কিসে এটা ব্যবহার হয়েছে সে ব্যাপারে অবশ্য তিনি বিস্তারিত কিছু উল্লেখ করেননি। এ মাসের প্রথমদিকে দ্বি-দলীয় পাবলিক একাউন্ট কমিটি বলেছে যে ওয়ানএমডিবি বোর্ড তার দায়িত্ব পালন করেনি এবং তার সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা শাহরুল হালমির ব্যাপারে তদন্ত হওয়া উচিত। পাবলিক একাউন্টস কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের নেতৃত্বাধীন এই তহবিলের উপদেষ্টা বোর্ড বিলুপ্ত করে দেয়া উচিত। অবশ্য বোর্ড এক বিবৃতিতে পাবলিক একাউন্ট কমিটির প্রতিবেদনের জবাবে বলেছে যে তারা ভালোভাবেই তাদের দায়িত্ব পালন করেছে এবং কোন ধরণের দুর্নীতির সঙ্গে তারা জড়িত ছিল না। বিবৃতিতে বলা হয়, বোর্ড মনে করে যে কোম্পানির জন্য মানসম্পন্ন পরিচালনা প্রতিষ্ঠা, একটি বোর্ড অডিট ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের মতো বিভিন্ন কর্পোরেট পরিচালনা ব্যবস্থার বাস্তবায়নসহ তার ভূমিকা ও দায়িত্ব পালনে তারা তাদের সামর্থ্যরে সর্বোত্তম চেষ্টাই করেছে।


আরও সংবাদ   বিষয়:  নাজিব রাজাক   অর্থ   দান   সউদী. পররাষ্ট্রমন্ত্রী  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক ও সম্পাদক :---
"মা নীড়" ১৩২/৩ আহমদবাগ, সবুজবাগ, ঢাকা-১২১৪
ফোন : +৮৮-০২-৭২৭৫১০৭, মোবাইল : ০১৭৩৯-৩৬০৮৬৩, ই-মেইল : [email protected]